হাজী সে’লিমের ছে’লের বাসা’য় অ’স্ত্র’স’হ যেস’ব অ’বৈ’ধ জি’নিস পেল র‍্যা’ব

ঢাকা-৭ আস’নের সংসদ সদস্য হাজী সেলি’মের ছে’লে ওয়ার্ড কাউ’ন্সি’লর ইরফা’ন সে’লিমে’র বাসা’য় অভি’যান চা’লিয়ে’ছে র‍্যাব। অভি’যানে ৩৮টি ও’য়াকি’টকি, পাঁ’চটি ভিপি’এস সেট, অ’স্ত্রস’হ এক’টি পি’স্ত’ল, একটি এক’নলা ব’ন্দু’ক, একটি ব্রি’ফ’কেস, একটি ‘হ্যা’ন্ড’কাফ, এক’টি ড্রো’ন এবং সা’ত বোতল বিদে’শি ম’দ ও বি’য়া’র উ’দ্ধা’র করা হয়েছে।

সোম’বার (২৬ অক্টোবর) র‍্যা’বে’র নি’র্বা’হী ম্যা’জি’স্ট্রেট সার’ও’য়ার আ’ল’মের নেতৃ’ত্বে অ”ভি’যান চা’লি’য়ে এসব উ’দ্ধা’র করা হয়। র‍্যাব সূ’ত্র এ তথ্য নি’শ্চিত করেছে।

র‍্যাবের জি’জ্ঞাসা’বাদে ই’রফান সেলি’ম জা’নিয়ে’ছেন, এসব ও’য়াকিট’কির মা’ধ্য’মে তিনি তার বা’সা’র আশ’পা’শের পাঁ’চ থেকে ১২ কি’লো’মি’টারের ম’ধ্যে থা’কা নে’তা’ক’র্মী ও অনু”সারী’দের স’ঙ্গে ক’থাবা’র্তা এবং যো’গা’যোগ রা’খতেন।

র‍্যাব জা’নি’য়েছে, উ’দ্ধা’র ‘ভি’পিএস সেট’গু’কে ‘আইন’শৃঙ্খ’লা র’ক্ষা’কারী বা’হিনী ডি’টেক কর’তে পা’রত না। তার বা’সা’র চার ও পাঁ’চ’তলার ক’ন্ট্রো’ল রুম থেকে এসব উ’দ্ধা’র করা হয়।

নি’র্বা’হী ‘ম্যা’জিস্ট্রে’ট সার”ও’য়ার আলম বলেন, এসব অ’স্ত্র ও হ্যা’ন্ড’কা’ফের বিষ’য়ে কোনো সদু’ত্ত’র দি’তে পারে’ননি ইর’ফান সে’লিম। আ’মা’দের ধারণা এগু’লো’ দিয়ে ‘তিনি সাধা’রণ মানু’ষকে ভ’য়”ভীতি দেখা’তেন। তার অ’স্ত্র দু’টির কো’নো লা’ই’সেন্স ছিল না।

রোব’বার (২৫ অক্টোবর) রাতে’ এমপি’ হাজী ‘মোহাম্মদ সে’লিমের ‘সং’সদ সদ’স্য’ লেখা সর’কারি গা’ড়ি থে’কে নেমে নৌবা’হি’নীর ক’র্মকর্তা ওয়া’সি’ফ আ’হমে’দ খানকে মা’র’ধর করা হয়। রাজ’ধা’নীর ক’লা’বাগান সি’ন্যা’লের পাশে’ এ ঘটনা ঘ’টে। রাতে এ ঘট’নায় জিডি হলেও আজ (সোমবার) ভোরে হাজী সে’লিমে’র ছেলে’সহ সাতজ’নে’র বি’রু’দ্ধে মা’ম’লা করা হয়।

মা’ম’লার এজা’হারে বলা হয়ে’ছে, ‘এর’ফানে’র গা’ড়ি ওয়া’সিফ’কে ধা’ক্কা মা’রা’র পর তিনি স’ড়’কের পাশে মোট’র’সাইকে’লটি থামিয়ে গাড়ির সা’মনে দাঁ’ড়ান এবং নি’জের পরি’চয় দেন। তখন গাড়ি থে’কে আ’সামি’রা একসঙ্গে বল’তে থা’কেন, ‘তোর নৌ’বাহিনী/সে’নাবা’হিনী বের কর’তে’ছি, তোর লে”ফ’টেন্যান্ট/ক্যাপ্টে’ন বের করতে’ছি। তোকে এখনি মেরে ফেলব’ বলে কিল-ঘু’ষি মা’ন এবং আমার স্ত্রী’কে অ’শ্লী’ল ভাষা’য় গা’গা’লা’জ করেন।’

‘তারা আ’মাকে ‘মা’র’ধ’র করে র’ক্তা’ক্ত অব’স্থায় ফেলে যায়। পরে আমার স্ত্রী, স্থা’নীয় জনতা এবং পাশে’ ডি’উটি’রত ধা’নম’ন্ডি থা’নার ট্রাফিক পুলিশ কর্ম’কর্তা আমা’কে ‘উ’দ্ধার করে আ’নো’য়ার খান ম’ডেল হাস’পা’তালে নিয়ে যায়।’

মা’ম’লায় মোট পাঁচটি ফৌ’জদারি অ’পরা’ধের ধা’রা’র কথা উ’ল্লে’খ করা হয়েছে। অ’প’রাধ’গু’লো হলো- দণ্ড’বি’ধি ১৪৩ অনু’যা’য়ী বেআ’ইনি সমা’বেশে’র সদস্য হয়ে কোনো ব্য’ক্তির’ বি’রু’দ্ধে অপ’রাধ’মূল’ক’বে বল প্র’য়ো’গ করা, ৩৪১ অনু’যা’য়ী কোনো ব্যক্তি’কে অ’বৈ’ধভা’বে নি’য়’ন্ত্রণ করা, ৩৩২ ধারা অনু’যা’য়ী স’রকা’রি কর্ম’ক’র্তার কা’জে বা’ধা’নের উদ্দে’শ্যে আ’হ’ত করা, ৩৫৩ ধারা অনুযায়ী’ সর’কারি কর্ম’কর্তার ও’পর বল প্র’য়ো’গ করা এবং ৫০৬ ধা’রা’য় প্রা’ণনা”শের হু’ম’কি দে’য়ার।

সোমবার দু’পুরে ‘অভি’যান চা’লিয়ে ই’রফান সে’লিমকে গ্রে’ফ’তার করে র‌্যাব। এ’দিকে হাজী সে’লিমের গা’ড়িচা’লক মিজা’নুর রহ’মা’নকে এক দি’নের ‘রি’মা’ন্ডে নে’য়ার ‘দেশ দি’য়েছে’ন আ’দালত। ঢাকা মহানগর হা’কিম আবু সুফিয়া’ন মো’হাম্মদ নোমা’নের আদা’লত এই আ’দেশ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *